বিদেশের খবর

ভারত সীমান্তে চীনের যুদ্ধ বিমান, বড় প্রস্তুতি!

Spread the love

আজকের শেরপুর ডেস্ক: ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে সংঘাত নিয়মিত ব্যাপার হলেও, সীমান্তে আরেক প্রতিবেশী চীন থেকে বরাবরের মতোই সাবধান ভারত। চীনের বিরুদ্ধে সীমান্তে কোনো গুলিই খরচ করতে হয় না ভারতের। তবে গত কয়েকদিন ধরেই চীনের সাথে ভারতের সীমান্তে চলছে উত্তেজনা। এর মধ্যেই সীমান্তে যুদ্ধবিমান মোতায়েন করে চীন ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে, এমনটাই মনে করছে ভারত।
ভারত ও চীন সীমান্তের একটি উপগ্রহ চিত্র প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। ওই চিত্রে দেখা যায়, তিব্বতের গারি গুনশা বিমান ঘাঁটিতে বড় মাপের নির্মাণকাজ চালাচ্ছে চীন। ওই ছবির বিশ্লেষণে ভারতের দাবি, লাদাখের প্যাংগং লেক থেকে ২০০ কিমি দূরে গারি গুনশা ঘাঁটিতে অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান মোতায়েন করে রেখেছে চিন।

গারি গুনশার গত ৬ এপ্রিলের ছবিতে দেখা যাচ্ছে, তখনও ততোটা নির্মাণকাজের চিহ্ন নেই। কিন্তু তার পর ২১ মে পাঠানো একটি ছবি অনেকটাই ব্যতিক্রম। মাস দেড়েকের মধ্যে গারি গুনশায় যে বিপুল নির্মাণ হয়েছে তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে ওই ছবি দেখে। ভারতের গবেষণায় গারি গুনশা বিমান ঘাঁটিতে জে ১১ অথবা জে ১৬ মডেলের যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি। ২০১৯-এর ডিসেম্বরে গারি গুনশায় প্রথম যুদ্ধবিমানের অস্তিত্ব টের পায় ভারতীয় উপগ্রহ।
ভারত-চিন সংঘাতের পরিস্থিতির মধ্যেই যুদ্ধের প্রস্তুতি রাখতে সেনাকে নির্দেশ দিয়েছেন চীনা প্রেসিডেন্ট চিনফিং। মঙ্গলবার তিনি বলেন, ‘‘সেনাকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করে তুলতে হবে। সেজন্য সামগ্রিক প্রশিক্ষণ জরুরি।’’ ভারতীয় সেনা সূত্রের খবর, উপগ্রহ চিত্রে দেখা যাচ্ছে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে প্রায় হাজার দশেক সেনা মোতায়েন করেছে চিন।
ভৌগলিক দিক থেকে গারি গুনশা বিমান ঘাঁটির অবস্থান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সেখান থেকে সামরিক ও অসামরিক ২ ধরনের বিমানই উঠানামা করে। এই মুহূর্তে ভারত-চীন সীমান্তের তিনটি সেক্টরেই উত্তেজনা জারি রয়েছে। গত ৫ মে থেকে পশ্চিম ভাগ বা ওয়েস্টার্ন সেক্টরে লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) সংঘাত চলছে। ‘ফিঙ্গার থ্রি’ ও ‘ফিঙ্গার ফোর’-এর মধ্যে রাস্তা তৈরির কাজে চিন প্রথম আপত্তি তোলে। একই সঙ্গে গালওয়ান উপত্যকার সঙ্গে সংযোগকারী রাস্তার কাজেও বেজিংয়ের আপত্তি রয়েছে। ৫ মে রাতে পূর্ব লাদাখের প্যাংগং লেকের কাছে চিন ভারতীয় সেনার নজরদারি বাহিনীকে বাধা দেয়। পাশাপাশি পূর্ব ভাগে বা ইস্টার্ন সেক্টরের উত্তর সিকিমেও এ মাসের শুরুতে দুই সেনাবাহিনীর সংঘাত বাধে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close