দেশের খবর

বিশ্বজয়ী নাজমুন নাহার ‘ডটার অব দ্য আর্থ’

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: বাংলাদেশের পতাকাবাহী প্রথম বিশ্বজয়ী নাজমুন নাহার ভূষিত হয়েছেন আন্তর্জাতিক ‘পিস টর্চ অ্যাওয়ার্ড’ পদকে। তিনি পেয়েছেন ‘ডটার অব দ্য আর্থ’ উপাধিও। ইতিমধ্যে কোটি- কোটি মানুষের হৃদয়ে সাড়া জাগিয়েছেন! শুধু তাই নয় পৃথিবীব্যাপী তিনি পেয়েছেন ব্যাপক পরিচিতি। ভূষিত হয়েছেন বহু সম্মাননায়।
বাংলাদেশের পতাকা বুকে নিয়ে নতুন নতুন সীমানা জয়ের স্বপ্ন পূরণে বিভোর নাজমুনের একটাই স্বপ্ন পৃথিবীর প্রতিটা দেশে তার এই লাল সবুজের পতাকা উড়ানো। বাংলাদেশকে গোটা বিশ্বের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে দেয়া। পৃথিবীর প্রতিটি মানুষের কাছে ‘ওয়াননেস ওয়ার্ল্ড ফ্যামিলি’ অর্থাৎ ‘এক পৃথিবী- এক পরিবার’ এই বার্তাটি পৌঁছে দেয়া। তিনিই সর্বাধিক রাষ্ট্র ভ্রমণকারী প্রথম বাংলাদেশি।
অসম্ভব প্রত্যয়ী নারী নাজমুন নাহারের জন্ম বাংলাদেশের লীপুর জেলায়। জীবনের সবচেয়ে বড় উৎসাহ ছিল বাবা, দাদা ও বই। তার দাদা ছিলেন একজন ইসলামিক স্কলার ও ভ্রমণকারী। সুইডেনের লুন্ড ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করেছেন নাজমুন নাহার। তিনি মাকে নিয়েও ঘুরেছেন পৃথিবীর ১৪টি দেশ। তার হাতে বাংলাদেশের লাল সবুজের পতাকা, পিছনে ব্যাকপ্যাক, দু’পায়ে বজ্রের গতি, হৃদয়ে তার বাংলাদেশ, মুখে তার বিশ্বশান্তির বার্তা। পৃথিবীব্যাপী মহাপর্বত, মহাপ্রলয়, মহাসমুদ্রের বাধা, নগর-বন্দর-শহরের দীর্ঘপথ আর সীমান্তের বাধা অতিক্রম করে তিনি ছুটে চলেছেন মানবর্তার বার্তা নিয়ে।

নাজমুন নাহার ইতোমধ্যেই বাংলাদেশের পতাকা হাতে ঘুরে ফেলেছেন পৃথিবীর ১৩৫টি দেশ। প্রতিটা দেশেই লাল সবুজের পতাকার মাধ্যমে বাংলাদেশেকে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছেন। ২০০০ সালে প্রথম ইন্ডিয়া ইন্টারন্যাশনাল এডভেঞ্চার প্রোগ্রামে অংশগ্রহণের মাধ্যমে নাজমুন নাহারের প্রথম অভিযাত্রা শুরু হয়। পাঁচবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছেন। লাল সবুজের পতাকা হাতে একা পাড়ি দিয়েছেন সড়কপথে ১৩৫টি দেশের সীমানা। ইতোমধ্যে ১৩৫ তম দেশ হিসেবে ভ্রমণ করেন কোস্টারিকা। সব দুর্গম কঠিন দুয়ার ভেঙে- ভেঙে স্বদেশের পতাকা হাতে ১৩৫ টি দেশ ভ্রমণ করার রেকর্ড অর্জন করেছেন। তার পজিটিভ চিন্তা, বিনয়, মেধা, মনন, জীবন দর্শন তাকে এতদূর নিয়ে এসেছে।
নিউইয়র্কে ‘পিস টর্চ আওয়ার্ড’ পাওয়ার আগে তিনি নিউইয়র্কের নাসাউ কলোসিয়ামের ফোবানা সম্মেলনে সম্মানিত হয়েছেন ‘মিস আর্থ কুইন অ্যাওয়ার্ড’ ও ইয়ুথ কনফারেন্সে ‘গেøাব অ্যাওয়ার্ড’ পেয়ে। এ ছাড়া চলতি বছরে নাজমুন নাহার পেয়েছেন অনন্যা অ্যাওয়ার্ড, অতীশ দীপঙ্কর গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড, জন্টা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড, রেড ক্রিসেন্ট মোটিভেশনাল অ্যাওয়ার্ড। শিরোনাম হয়েছেন দেশি-বিদেশি বহু গণমাধ্যমের, তাঁকে নিয়ে তৈরি হয়েছে অনেক তথ্যচিত্র, ভিডিও ডকুমেন্টারি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close