খেলাধুলা

অসাধারণ নেইমার অবিশ্বাস্য ব্রাজিল

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: তারকা ফরোয়ার্ড নেইমারের পেনাল্টি ও রিচারলিসনের গোলে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ইকুয়েডরকে ২-০ ব্যবধানে পরাজিত করেছে ব্রাজিল।
৬৪ মিনিটে রিচারলিসনের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল সেলেসাওরা। ইনজুরি টাইমের চতুর্থ মিনিটে নেইমার ব্যবধান দ্বিগুণ করার পাশাপাশি দলের জয় নিশ্চিত করেন। ম্যাচ শেষের পাঁচ মিনিট আগে ইকুয়েডরের এরিয়াতে মিডফিল্ডার অ্যাঞ্জেলো প্রিকেইডোর সঙ্গে সংঘর্ষ হওয়ায় গ্যাব্রিয়েল জেসুসের বিপক্ষে ফ্রি-কিকের নির্দেশ দেন রেফারি অ্যালেক্সিস হেরেরা। কিন্তু চার মিনিট ধরে ভিএআর প্রযুক্তি পুরো ঘটনাটি পর্যবেক্ষণ করে ব্রাজিলকে পেনাল্টি উপহার দেয়। নেইমারের দুর্বল শটটি ইকুয়েডর গোলরক্ষক আলেক্সান্দার ডোমিনগুয়েজ সহজেই রুখে দেন। সঙ্গে সঙ্গে আক্রমণে যায় ইকুয়েডর। কিন্তু রেফারি হেরেরা বাঁশি বাজিয়ে পেনাল্টি শটটি পুনরায় নেওয়ার নির্দেশ দেন। ডোমিনগুয়েজ তার লাইন থেকে বেরিয়ে এসেছিল বলে শটটি আবারও নেওয়ার জন্য ব্রাজিলকে আহ্বান জানানো হয়। এবার আর কোনো ভুল করেননি নেইমার। ডোমিনগুয়েজকে উল্টোদিকে পাঠিয়ে প্রথম ভুলটি সংশোধন করেছেন পিএসজির এ তারকা ফরোয়ার্ড।
আগামী বুধবার ভোরে ব্রাজিল প্যারাগুয়ে সফরে যাবে ও পেরুকে আতিথেয়তা দেবে ইকুয়েডর। এর পর পরই ১৩ জুন থেকে ব্রাজিলে শুরু হচ্ছে কোপা আমেরিকা।

এ পর্যন্ত দক্ষিণ আমেরিকান বাছাইপর্বে পাঁচ ম্যাচে শতভাগ জয় নিয়ে সর্বোচ্চ ১৫ পয়েন্টসহ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে ব্রাজিল। চার পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অপরাজিত থাকা আর্জেন্টিনা। দুই পয়েন্ট পিছিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইকুয়েডর।
প্রত্যাশিতভাবেই কালকের ম্যাচে প্রথম ভাগে ৭৬ শতাংশ বল ছিল ব্রাজিলের দখলেই। কিন্তু প্রথম ভালো একটি সুযোগ তৈরির জন্য তাদেরকে ২০ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে। নেইমারের সুইংগিং ফ্রি-কিক থেকে রিচারলিসন অল্পের জন্য বল জালে পাঠাতে ব্যর্থ হন। মিনিটখানেক পরেই রিচারলিসনের সহায়তায় গ্যাব্রিয়েল ডোমিনগুয়েজকে পরাস্ত করতে পারেননি। ইকুয়েডর তাদের স্বাভাবিক শারীরিক ফিটনেস দিয়ে ব্রাজিলকে রুখে দিচ্ছিল। কিন্তু গত তিন ম্যাচে তাদের করা ১৩ গোলের সেই আক্রমণাত্মক মেজাজ কাল একেবারেই চোখে পড়েনি। বিশেষ করে ইকুয়েডরের পেশিশক্তির কাছে বারবার নতি স্বীকার করতে হয়েছে নেইমারকে। বিরতির ঠিক আগে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল তিতের শিষ্যরা। কিন্তু ডানিলোর রাইট-উইং ক্রস থেকে গ্যাব্রিয়েলের প্রচেষ্টাটি অল্পের জন্য অফসাইডের কারণে বাতিল হয়ে যায়। এর পর পরই নেইমারের একটি দূরপাল্লার শট কোনোমতে রক্ষা করেন ডোমিনগুয়েজ।
৫৮ মিনিটে ফুল-ব্যাক প্রিকেইডো ইকুয়েডরকে কোনো সুখবর দিতে পারেননি। ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডে ফ্রেডের পরিবর্তে জেসুসকে নামান ব্রাজিলিয়ান কোচ তিতে। ২০১৮ সালের পর সেলেসাওদের হয়ে এই প্রথম মাঠে নেমেছিলেন জেসুস। আর এ পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গেই সফল হয় ব্রাজিল। পোস্টের খুব কাছে থেকে ডোমিনগুয়েজকে পরাস্ত করে ব্রাজিলকে এগিয়ে দেন রিচারলিসন। কাউন্টার অ্যাটাক থেকে রিচারলিসনের ক্রসে গ্যাব্রিয়েল অল্পের জন্য গোল করতে ব্যর্থ হন। কিন্তু ম্যাচের শেষে সত্যিকার নাটকীয়তার জন্ম দেয় ভিএআর। আর এর মাধ্যমে আরও একবার খবরের হেডলাইন হলো এ প্রযুক্তি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close