স্থানীয় খবর

শেরপুরে বসতবাড়িতে হামলা-ভাঙচুর স্বামী-স্ত্রীসহ আহত তিন

Spread the love


শেরপুর ডেস্ক: গরু দিয়ে জমির ধান খাওয়ানোকে কেন্দ্র করে বগুড়ার শেরপুরে বসতবাড়িতে হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। সেইসঙ্গে প্রতিপক্ষের সশস্ত্র হামলায় স্বামী-স্ত্রীসহ তিনজন আহত হন। এরমধ্যে দুইজনের অবস্থা গুরুতর বলে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে। এ ঘটনায় শনিবার (১২জুন) সকালে চারজনকে অভিযুক্ত করে শেরপুর থানায় একটি লিখিত এজাহার দেওয়া হয়েছে।
সশস্ত্র হামলায় আহতরা হলেন- উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের মামুরশাহী গ্রামের আজাহার আলী মোল্লার ছেলে ছামেদ আলী মোল্লা (৪২), তার স্ত্রী ছানোয়ারা বেগম (৩৭) ও ছেলে সাজু আহমেদ (২১)।
অভিযোগে জানা যায়, বেশকিছু ধরে মাঝেমধ্যেই উপজেলার মামুরশাহী গ্রামের তোজাম্মেল হক তার গরু দিয়ে একই গ্রামের ছামেদ আলী মোল্লার ফসলি জমির ধান খাওয়াচ্ছিলেন। এনিয়ে উভয়ের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। একপর্যায়ে বিগত ৯জুন বিকেলে আবারও গরু দিয়ে ফসল খাওয়ানোকে কেন্দ্র করে ছামেদ আলী ও তোজাম্মেল হকের বাকবিতÐা হয়। এরই জেরধরে ওইদিন সন্ধ্যার দিকে ছামেদ আলীর বাড়িতে সশস্ত্র হামলা চালায় প্রতিপক্ষ তোজাম্মেল হক ও তার স্বজনরা। এমনকি বসতবাড়ির শয়নকক্ষে ঢুকে বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে ক্ষতি সাধন করেন এবং নগদ দুই লাখ টাকা লুটে নেয় তারা। এসময় বাধা দেওয়ায় রাম-দা কুপিয়ে ছামেদ আলীর শরীর রক্তাক্ত জখম করাসহ মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়। তাকে উদ্ধারে এগিয়ে গেলে স্ত্রী ছানোয়ারা বেগম ও ছেলে সাজু আহম্মেদকেও বেধড়ক মারপিট ও ধারারো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে আহত করেন বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত ছামেদ আলীর ভাই এনামুল হক বলেন, তার ভাইয়ের মাথার একাধিক স্থানে ফেটে দেওয়া হয়। শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে রক্তাক্ত করা হয়। অর্ধশতাধিক সেলাই দেওয়া হয়েছে তাকে। তাই এখনো শঙ্কামুক্ত নন। তার স্ত্রীর অবস্থাও ভালো নয়। তাই স্বামী-স্ত্রী দু’জনই আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি। তবে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে অভিযুক্ত তোজাম্মেল হক এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বাকবিতÐার জেরধরে উভয়পক্ষের মধ্যেই মারামারি হয়েছে। এতে তার ছেলেরাও আহত হয়েছেন বলে দাবি করেন।
অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা শেরপুর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রবিউল ইসলাম বলেন, ইতিমধ্যে অভিযোগটির তদন্ত কাজ সম্পন্ন করেছি। সে অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close