স্থানীয় খবর

শেরপুর নেসকোর কাছে একটি মানবিক প্রশ্ন?

Spread the love


শেরপুর ডেস্কঃ বগুড়ার শেরপুর শহরের শান্তিনগরে একটি বিদ্যুতের খুঁটি থেকে কমপক্ষে দুই যুগ আগে একটি বাসায় সকল নিয়ম নীতি অনুসরণ করে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়। সম্প্রতি এক ব্যক্তি ঐ খুঁটি সংলগ্ন স্থানে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে বহুতল বিশিষ্ট একটি দালান নির্মাণ শুরু করে। সেখানে ঐ বাসার বিদ্যুৎ সংযোগ স্থানান্তর না করে বা কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে কাজ করায় এবং পুরাতন দালান ভাঙ্গার সময় গত ১৫ জুন দুপুরে দুই যুগ আগে সংযোগ দেয়া বিদ্যুৎ লাইনের সার্ভিস তার ছিঁড়ে যায়। তখন বিদ্যুৎ বিভাগ কে না জানিয়ে তরিঘরি করে দালান ভাঙ্গার কাজে নিয়োজিত একজন ভ্যান চালক বিদ্যুতের ঐ ছেঁড়া তার জোড়া দিয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করে দেয়। পরে ঘটনাটি নেসকোর শেরপুর বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবহিত করার পর তার নির্দেশে ১৬ জুন দুইজন উপ-সহকারী প্রকৌশলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এদিকে ১৭ জুন সকালে দুই যুগ আগে বিদ্যুৎ সংযোগ নেয়া বাসার মেঝেতে তীব্র তাপ অনুভুত হয়। এ অবস্থায় বাসার লোকজন আতংকিত হয়ে পড়ে। এরপর ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন মাষ্টারের সাথে যোগাযোগ করে এর কোন কারণ উদঘাটন করতে না পেরে আবার শেরপুর বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বিদ্যুৎ বিভাগের কয়েকজন কর্মীকে ঘটনাস্থলে পাঠান। বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা অনেক অনুসন্ধান করে অবশেষে দেখতে পান যে ভ্যান চালক বিদ্যুতের ছেঁড়া তার জোড়া দেওয়ার সময় নেগেটিভ পজেটিভ উল্টাপাল্টা করে লাগানোর কারণে পুরো বাসা বিদ্যুতায়িত হয়ে রয়েছে। ঐ বাসার একজন গৃহিণী জানান গত ১৬ জুন তিনি তার ফ্রিজ খোলার সময় তাকে সজোরে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। তখন তিনি বুঝতে না পারলেও আজ সকালে ঘরের মেঝেতে তীব্র তাপ অনুভুত হলে তখন বিষয় টি সকলের নজরে আসে। বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা জানান তাদের কে না জানিয়ে বিদ্যুতের ছেঁড়া তার উল্টাপাল্টা করে জোড়া দেওয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে। এর ফলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারত। আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতের জন্য কোন দুর্ঘটনা হয়নি। এখন নেসকোর কাছে এলাকার মানুষের একটি মানবিক প্রশ্ন আপনাদের কি কোন আইন কানুন নেই?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close