স্থানীয় খবর

শেরপুরে সন্ত্রাসীদের হামলায় জামাই-শ্বশুর আহত

Spread the love

শেরপুর ডেস্কঃ বগুড়ার শেরপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরধরে জামাই-শ্বশুরকে পিটিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষের ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা। গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে তাদেরকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। উক্ত ঘটনায় সোমবার (০৭মার্চ) বিকেলে শেরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।
আহতরা হলেন- উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের ছোনকা গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে মিঠু সরকার (৩৫) ও তার শ্বশুর একই গ্রামের মনছের আলীর ছেলে ইউনুছ আলী (৫৫)।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত মিঠু সরকার বলেন, আমার বাবা উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের ছোনকা মৌজায় ৯০৯ খতিয়ান ভুক্ত সাবেক ৭৪০ দাগে ৪৯দশমিক ৫০শতক জমি ক্রয় করেন। পরবর্তীতে পৈতৃক সূত্রে আমিসহ আমার আরও দুই ভাই ওই জমির মালিক হই। সে অনুযায়ী আমরা জমিটি ভোগ দখল করেও আসছি। কিন্তু ছোনকা গ্রামের খলিল সেখের ছেলে সোহেল রানা ও আহসান হাবিব কোনো প্রকার কাগজপত্র ছাড়াই ওই জমিটির মালিকানা দাবি করে বসেন। এমনকি জোরপূর্বক দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেন।
এরই ধারাবাহিকতায় রোববার (০৬মার্চ) দুপুরের দিকে জমিতে গিয়ে জোরপূর্বক সীমানা প্রাচীর নির্মাণ শুরু করেন। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাচীর নির্মাণ করতে নিষেধ করি। এসময় সোহেল রানার সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়। আর এই ঘটনার জেরধরেই সোহেলের ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা আমার ওপর হামলে পড়ে। লোহার রড ও লাঠি দিয়ে আমাকে বেধড়ক পেটায়। একপর্যায়ে আমার শ্বশুর এগিয়ে এলে তাকেও বেধড়ক মারপিট করে আহত করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।
বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে অভিযুক্ত সোহেল রানার সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।
শেরপুর থানার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহিদুল ইসলাম এ প্রসঙ্গে বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক আইন অনুযায়ী দোষীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close