বিনোদন

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিয়ে যা বললেন সোনাক্ষী

Spread the love


শেরপুর ডেস্ক: বলিউড অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহার বিরুদ্ধে দায়ের করা প্রতারণা মামলায় জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। এ অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে ৩৭ লাখ রুপি জালিয়াতির অভিযোগ আনা হয়েছে। কয়েকদিন আগে ভারতীয় একাধিক গণমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করে। তবে সেই সময়ে বিষয়টি নিয়ে সোনাক্ষীর কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এবার সোনাক্ষী জানালেন, জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির খবরটি সত্যি নয়। মঙ্গলবার এক টুইটে এমন দাবি করেন ‘দাবাং’ খ্যাত এই অভিনেত্রী। সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে সোনাক্ষী বলেনÑ‘মিডিয়ায় খবর ছড়িয়েছে আমার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। অথচ এ খবরে কোনো কর্তৃপক্ষের বক্তব্য নাই, কোনোরকম যাচাই বাছাইও করা হয়নি। এটি সম্পন্ন কল্পকাহিনি, আমাকে হেনস্তা করার জন্য একটি মহল কাজটি করেছে। সকল মিডিয়া হাউস, সাংবাদিকদের প্রতি আমার অনুরোধ, এই ভুযা খবরটি আর প্রকাশ করবেন না।’ ভুয়া খবর ছড়ানোর কারণে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবেন সোনাক্ষী। তা জানিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার সুনাম নষ্ট করে এই লোকটি আমার কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিতে চাচ্ছে এবং প্রচারে আসছে। দয়া করে আপনারা এতে কান দেবেন না। এই মামলাটি এলাহবাদ হাইকোর্ট স্থগিত করেছে, এখন মুরাদাবাদ কোর্টে বিচারাধীন রয়েছে। আমার লিগ্যাল টিম ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’ সোনাক্ষীর বিরুদ্ধে দায়ের করা করা জালিয়াতির মামলটি এখন আদালতে বিচারাধীন। তা জানিয়ে এই অভিনেত্রী বলেনÑ‘মোরাদাবাদ কোর্টের রায় না দেওয়া পর্যন্ত এটিই আমার একমাত্র বক্তব্য, সুতরাং এ বিষয়ে আর কেউ আমার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন না। আমি এখন বাড়িতে আছি; আপনাদের নিশ্চিত করছি, আমার বিরুদ্ধে কোনো গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়নি।’ ইন্ডিয়া ডটকম এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ইভেন্ট অর্গানাইজার প্রমোদ শর্মা উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদের বাসিন্দা। স্থানীয় কাঠঘর থানা এলাকায় একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন তিনি। এটি ২০১৯ সালের ঘটনা। এতে পারফর্ম করার কথা থাকলেও সোনাক্ষী অংশ নেননি। এরপর এ অনুষ্ঠানের আয়োজক সোনাক্ষীকে দেওয়া অর্থ ফেরত চান। কিন্তু তার ম্যানেজার অর্থ ফিরিয়ে দিতে অস্বীকৃতি জানান। অর্থ ফেরত না পেয়ে এ অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে জালিয়াতির মামলা দায়ের করেন প্রমোদ শর্মা। এই মামলার শুনানির জন্য সোনাক্ষীর মোরদাবাদে যাওয়ার কথা থাকলেও যাননি তিনি। ধারাবাহিকভাবে অনুপস্থিত থাকার কারণে আদালত এ অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন বলে এ প্রতিবেদনে জানানো হয়। তারপরই সোনাক্ষীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির খবর ছড়িয়ে পড়ে। ‘দাবাং’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক ঘটে সোনাক্ষীর। এ সিনেমায় তার বিপরীতে অভিনয় করেন সালমান খান। এ অভিনেত্রীর পরবর্তী সিনেমা ‘ডাবল এক্সেল’। এতে তার সহশিল্পী হুমা কুরেশি কেন্দ্রীয় নারী চরিত্রে অভিনয় করছেন। তা ছাড়া ‘কাকুডা’ সিনেমায় দেখা যাবে সোনাক্ষীকে। এতে আরো অভিনয় করবেন রিতেশ দেশমুখ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close