দেশের খবর

খালেদা জিয়া মুক্তি পেলে তিনমাসে সরকার পরিবর্তন: ডা. জাফরুল্লাহ

Spread the love


শেরপুর ডেস্কঃ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মুক্তি পেলে তিনমাসের মধ্যে সরকার পরিবর্তন হবে বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে যেমন করে হোক, আপনারা মুক্ত করে আনেন। তিনি মুক্তি পেলে এই সরকার পরিবর্তন করতে তিনমাস লাগবে, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন করতে বর্তমান সরকার রাজি হবে।
জনতার অধিকার পার্টি (পিআরপি) নামে নতুন একটি দলের আত্মপ্রকাশ উপলক্ষে এসব কথা বলেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। বুধবার (১৭ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবে এ অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পিআরপির চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে গণশক্তি আন্দোলনের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ মো. তাহের নতুন দলটিকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ২০২৪ সালের নির্বাচন নিয়ে আগামী কয়েকটি মাস জাতীয় জীবনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। তবে আগামী নির্বাচন নিয়ে তিনি দুটি শঙ্কার কথা জানান- জনগণ ভোট দিতে পারবেন কিনা এবং আদৌ নির্বাচন হবে কিনা। অনুষ্ঠানে পিআরপির নেতাকর্মীসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতা হারানোর ভয়ে আছেন দাবি করে জাফরুল্লাহ আরোও বলেন, ‘আপনি (প্রধানমন্ত্রী) ভয় পাচ্ছেন কেন? হারলে হারবেন, জিতলে জিতবেন। আপনার প্রতি কোনো অবিচার হবে না, ন্যায়বিচার পাবেন। আমি অন্তত আপনার পাশে থাকব।
অনুষ্ঠানে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, এই সরকার যত দিন ক্ষমতায় আছে, তত দিন শুধু ভোট নয়, খাদ্য, জীবন, জ্বালানি- কোনো কিছুরই নিরাপত্তা নেই। এই সরকারের কাছে পুরো দেশ অনিরাপদ। আগামী জাতীয় নির্বাচন সম্পর্কে তিনি বলেন, এই সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে বিরোধী দল নির্বাচনে জিতবে- সে আশার গুড়ে বালি। ইভিএমে ভোট হলে, এই সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে ভোট হলে, বিরোধী পক্ষ নির্বাচনে জিততে পারবে না। ইভিএমে যেখানেই ভোট দেয়া হোক না কেন, নির্দিষ্ট একটি প্রতীকে ভোট পড়বে বলেও তিনি দাবি করেন।
ইভিএমের বিরোধিতা করে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, প্রথমবার অন্য দলগুলোকে নির্বাচনে আসতেই দেয়নি, দ্বিতীয়বার দিনের ভোট রাতে করেছে। এবার চাইছে ইভিএমে ভোট করতে। ইভিএম ‘কমান্ড’ অনুযায়ী কাজ করবে দাবি করে তিনি বলেন, এবার মেশিন দিয়ে কারচুপি করবে। কারচুপির পর মামলাও করা যাবে না। কারণ, প্রমাণ নেই। নতুন দলের আত্মপ্রকাশ সম্পর্কে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, নতুন দলের মাধ্যমে নতুন নতুন মানুষকে যুক্ত করে অভিন্ন দাবিতে আন্দোলন করতে হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close