স্থানীয় খবর

শেরপুরে এলজিইডির উপ-সহকারী প্রকৌশলীর ওপর হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

Spread the love


শেরপুর ডেস্ক: বগুড়ার শেরপুরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) উপ-সহকারী প্রকৌশলীর ওপর হামলার ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মামলা দায়েরের পর সোমবার দিবাগত রাতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক ইবনে সিনা ওরফে সিনহা (৩৭) গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি শাজাহানপুর উপজেলার নয়মাইল এলাকার জামালপুর গ্রামের মৃত সামছুল আলমের ছেলে ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার খামারকান্দি ইউনিয়নের ঝাজর-বিলনোথাড় সড়কের চেঙ্গারী খালের উপর ৬০ মিটার দৈর্ঘ্যের সেতুর নির্মাণকাজ চলমান আছে। ৬ কোটি ৮৮ লাখ ৪২ হাজার ৫৮ টাকা চুক্তিমূল্যের সেতুর ঠিকাদারি কাজটি করছে বগুড়ার মেসার্স মাসুমা বেগম এন্টারপ্রাইজ।
ব্রিজটি নির্মাণে নানা অনিয়ম নিয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজনের সঙ্গে বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলার বেড়েরবাড়ী গ্রামের মৃত মুনছুর রহমান ছেলে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি)উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসানের বাকবিতণ্ডতা হয়। এ নিয়ে কাজের গুনগত মান ভালো না হওয়ায় কাজ প্রায় ১ সপ্তাহ বন্ধও ছিল।
গত ১৬ জানুয়ারি সোমবার দুপুরে বিলনথা এলাকায় সিএনজি যোগে ৩ জন মানকি টুপি পড়ে প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসানের পথ রোধ করে। কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই তার ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে বেদম মারধর করে দুর্বত্তরা। পরে স্থানীয় লোকজন আহত উপ-সহকারী প্রকৌশলীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়ে দেন।
এ ঘটনায় উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা তিনজনকে আসামী করে ওই রাতেই শেরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রেক্ষিতে শেরপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইবনে সিনা ওরফে সিনহাকে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে।
শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আতাউর রহমান খোন্দকার বলেন, গ্রেপ্তারকৃত ইবনে সিনা ওরফে সিনহাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close