বিনোদন

বছর পার না হতেই বিয়ে ভেঙে গেলো শ্বেতার!

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: গত বছর ১৩ ডিসেম্বর দীর্ঘদিনের বন্ধুকে বিয়ে করেছিলেন ভারতীয় টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্বেতা বসু প্রসাদ। কিন্তু বিয়ের সুখ আর টিকল না তার কপালে। বিয়ের বছর না ঘুরতেই এল ভাঙনের খবর।
জিনিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোহিত মিত্তলের সঙ্গে বিয়ে হয় শ্বেতা বসু প্রসাদের। আর কয়েকদিন পরেই তাদের প্রথম বিবাহবার্ষিকী উদযাপনের কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎই এ অভিনেত্রী নিজের বিয়ে বিচ্ছেদের কথা জানানোয় হতাশ হয়েছেন তার ভক্তরা।
তিনি জানান, রোহিত এবং তিনি একসঙ্গে বসে আলোচনা করেই বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বিয়ের পর রোহিতের সঙ্গে যে স্মৃতি রয়েছে, তা অুণ্ণ থাকবে। সেই স্মৃতির পাতা উলটেই এবার তারা একসঙ্গে বিয়ে ভাঙার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে ‘মাকড়ি’ খ্যাত এ অভিনেত্রী।
বেশ ধুমধাম করেই রোহিতের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন তিনি। লাল রঙের বেনারসি শাড়ি পরে একেবারে বাঙালি সাজেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন শ্বেতা। তার বিয়েতে দণিী সিনেমা জগতের তারকারা হাজির হন। বিয়ের পর শ্বেতা এবং রোহিতের রিসেপশনের আসরও বসে বেশ জমকালোভাবেই। তবে বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যে থেকেই রোহিতের সঙ্গে মনোমানিল্য শুরু হয় শ্বেতা বসু প্রসাদের। এরপরই তারা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন।
স্বামী রোহিত মিত্তলের কছ থেকে কি কারণে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শ্বেতা; এ বিষয়ে স্পষ্টভাবে কিছু জানা যায়নি।
তবে বিয়ে না টিকলেও শ্বেতা অন্ধকার পথ ছেড়ে অভিনয়ে মনোযোগী হয়েছেন বলে জানা গেছে। অভিনয় জীবনের শুরুতেই পেয়েছিলেন সাফল্য তিনি। কিন্তু সেই ধারা মাঝপথে হারিয়ে ফেলেন চোরাগলির অন্ধকারে।
ইন্ডাস্ট্রিতে শ্বেতার চলার পথে হঠাৎই সুর কেটে যায় ২০১৪ সালে। অবৈধ যৌন পেশায় জড়িয়ে পড়েন তিনি। ভিআইপিদের মধুচক্রে পাওয়া যেত তাকে। ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে হায়দরাবাদের একটি হোটেল থেকে যৌন ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগে শ্বেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়।
সে সময় সংবাদমাধ্যমে হায়দরাবাদ পুলিশের বরাত দিয়ে শ্বেতার একটি বিবৃতি প্রকাশ হয়। সেই বিবৃতিতে বলা হয়েছিল যে, অভাবে পড়েই যৌনপেশায় জড়িয়ে যেতে হয়েছে তাঁকে। তবে চোরাগলির সে অন্ধকার থেকে বেরিয়ে আসেন তিনি। সেখান থেকেও ফিরে আসা যায় তা দেখিয়ে দিয়েছেন ভারতীয় জাতীয় পুরস্কারজয়ী এই অভিনেত্রী- শ্বেতা বসু প্রসাদ।
২০১৮ সালের ডিসেম্বরে বিয়ে করেন দীর্ঘদিনের বন্ধু রোহিত মিত্তলকে। বাঙালি ও মারোয়াড়ি, দুই রীতিতেই সাতপাকে বাঁধা পড়েন শ্বেতা।
ব্যক্তিগত জীবনের পাশাপাশি শ্বেতা নতুন ছন্দে ফিরে এসেছিলেন ইন্ডাস্ট্রিতেও। অভিনয় করেছেন ‘বদ্রীনাথ কি দুলহনিয়া’র মতো বক্সঅফিস সফল ছবিতে। তাঁকে শেষবার বড়পর্দায় দেখা গিয়েছে ২০১৯-এর ১২ এপ্রিল মুক্তপ্রাপ্ত ‘দ্য তাসখন্দ ফাইলস’ ছবিতে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close