জেলার খবর

স্বাধীনতা যুদ্ধ ছিলো একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থার জন্য -এমপি সিরাজ

Spread the love

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া-৬ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধ ছিলো একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থার জন্য। গণতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থার জন্য। আজকে ৪৯ বছর পরে অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে বলতে হয়- আমাদের সেই চেতনাগুলোকে হরণ করা হয়েছে, ধ্বংস করা হয়েছে মানুষের স্বপ্নগুলোকে। জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নয় এই সরকার। তারা এক দলীয় শাসনব্যবস্থা প্রবর্তন করার জন্য সমস্ত রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে ব্যবহার করছে। বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক সিরাজ বলেন, রাজাকারদের তালিকা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের দাবি তো একটাই- সঠিক তালিকা করা। আর সেটা একমাত্র মুক্তিযোদ্ধারা করতে পারেন। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের দলই সেটা করতে পারবে। বলেন, আমরা স্বাধীন ভূখণ্ড, পতাকা ও সংবিধান পেলেও প্রকৃত মুক্তি এখনো পাইনি। এখনো প্রতিনিয়ত আমাদের যুদ্ধ করতে হচ্ছে বাক-স্বাধীনতা, স্বাধীন বিচারব্যবস্থা ও অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য। দেশ আজ বিচারহীন। তাই বেগম খালেদা জিয়া এখনো কারাগারে। মহান বিজয় দিবস উপলে সোমবার সকালে বগুড়া জেলা বিএনপি আয়োজেন দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্য রাখেন তিনি এসব কথা বলেন।
বগুড়া জেলা আহবায়ক কমিটির সদস্য কেএম খায়রুল বাশারের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা সাবেক এমপি মোঃ হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, বগুড়া জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সাইফুল ইসলাম, ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, বগুড়া জেলা বিএনপির নেতা রেজাউল করিম বাদশা, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আলী আজগর তালুকদার হেনা, জয়নাল আবেদিন চাঁন, লাভলী রহমান, জেলা আহবায়ক কমিটির সদস্য এম আর ইসলাম স্বাধীন, হামিদুল হক চৌধুরী হিরু, সহিদ উন নবী সালাম, এনামুল কাদির এনাম, শেখ তাহা উদ্দিন নাইন, ওমর ফারুক খান, মনিরুজ্জামান মনির, সাইদুজ্জামান শাকিল। শহর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মশিউর রহমান শামিম, বগুড়া জেলা যুবদলের আহŸায়ক খাদেমুল ইসলাম খাদেম, যুগ্ম আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক এ বি এম মাজেদুর রহমান জুয়েল, যুগ্ম আহবায়ক সরকার মকুল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবু হাসান, সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম সিদ্দিকী রিগ্যান, শহর ছাত্রদলের সভাপতি সৌরভ হাসান সিপলু, সিপাত সরকার প্রমুখ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close