বিদেশের খবর

উত্তাল ভারত: দিল্লির জামা মসজিদ সহ দেশজুড়ে বিক্ষোভ

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে উত্তাল মুম্বাই, কলকাতা, দিল্লি সহ দেশটির বিভিন্ন শহর ও প্রদেশ। কঠোর নিরাপত্তার মধ্যেও শুক্রবার দিল্লির জামা মসজিদসহ বিভিন্ন রাজ্যে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এ সব স্থান থেকে বিােভকারীদের ধরপাকড়েরেরও খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।
কলকাতার প্রভাবশালী গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, শুক্রবার প্রবল শীত উপো করে বিভিন্ন জায়গায় একাধিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বিােভ মিছিল বের করা হয়। এ ছাড়া জামা মসজিদের সামনে বিােভ করেছেন কয়েক হাজার বিােভকারী। এমন পরিস্থিতিতে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে রাজ্যজুড়ে কড়া নিরাপত্তা জারি করা হয় প্রশাসনের প থেকে। গুরুত্বপূর্ণ এলাকাতে টহল বাড়ায় পুলিশ। পুলিশি বাধা উপো করে জামা মসজিদের সামনে বিােভে অংশ নিয়েছেন কংগ্রেস নেতা অলকা লাম্বা ও দিল্লির সাবেক বিধায়ক শোয়েব ইকবাল।এ সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সমালোচনা করে লাম্বা বলেন, ‘দেশে এই মুহূর্তে বেকারত্ব একটি বড় সমস্যা। কিন্তু আপনি এনআরসির জন্য মানুষকে লাইনে দাঁড় করাচ্ছেন। যেমনটা করেছিলেন নোট বাতিলের সময়।’

গণমাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়, বিােভকারীদের দমাতে শুক্রবার সকাল থেকেই পুলিশ সদস্যদের মোতায়েন করা হয় জামা মসজিদের সামনে। দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বেশ কয়েকটি সংগঠন এ দিন মিছিলের ডাক দিয়েছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ ভবন, সিলামপুর ও জাফরাবাদ। সেই নিষেধাজ্ঞা উপো করেই এ দিন শত শত বিােভকারী রাস্তায় নেমেছেন। উত্তরপ্রদেশ ভবনের সামনে জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিার্থীরা বিােভের ডাক দিয়েছিলেন। তবে সেই এলাকা নিরাপত্তার চাদরে ঘিরে ফেলা হয় প্রশাসনের প থেকে। এ ছাড়া ১৫ কোম্পানি আধাসামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে। ড্রোনের সাহায্যেও নজরদারি চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে দিল্লি পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, বিােভকারীরা মিছিলের চেষ্টা করলে বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। এ দিকে দণি মুম্বইয়ের আজাদ ময়দানে নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিােভে যোগ দিয়েছে শিার্থী ও সমাজকর্মীরা। এনডিটিভি জানিয়েছে, আজাদ ময়দানে বিােভকারীদের সঙ্গে অভিনেতা ও সেলেব্রিটিরাও যোগ দিয়েছেন। এ ছাড়া, আগস্ট ক্রান্তি ময়দানে নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে মিছিল বের করা হয় মহারাষ্ট্রের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশের নেতৃত্বে। ওই মিছিলে উপস্থিত ছিলেন বীর সাভারকারের নাতি রণজিৎ সাভারকার। মিছিলে ভারতীয় পতাকার পাশাপাশি বীর সাভারকারের পোস্টারও ছিল। গত সপ্তাহে এই আগস্ট ক্রান্তি ময়দান থেকে প্রতিবাদ মিছিল বের করেছিলেন কয়েক হাজার শিার্থী।
সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে গত কয়েকদিন ধরেই পুলিশ-বিােভকারীদের সঙ্গে দফায় দফায় সংঘর্ষে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজধানী। বিভিন্ন এলাকায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জনের বেশি বিােভকারী নিহত হন।
নাগরিকত্ব আইন অনুযায়ী, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ২০১৫ সালের আগে ভারতে আসা হিন্দু, শিখ, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ, পার্সি ও জৈন শরণার্থীরা ভারতের নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন। সমালোচকদের আশঙ্কা এই আইন ও এনআরসির যৌথ প্রয়োগে উপযুক্ত নথি না থাকা মুসলিমদের এই দেশ থেকে তাড়ানোর চেষ্টা করা হতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close