বিদেশের খবর

বউ চুরি উৎসব, নেই বাধা ও শাস্তি!

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: পশ্চিম আফ্রিকার নাইজার। সেখানে বাস করে যাযাবর পশুপালক উপজাতি ওডাআবে। শতাব্দীর পর শতাব্দী তারা পালন করে আসছে এক অদ্ভুত উৎসব। এই উৎসবে পুরুষরা যোগ দেয় পরের বউকে চুরি করার উদ্দেশ্য নিয়ে। এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেন স্ত্রীরাও। তাই এই উৎসবের অন্য নাম ‘বউ চুরি উৎসব’।
ওডাআবে সমাজে সম্পর্ক ভাঙার ও গড়ার সুযোগ পান নারী-পুরুষরা। কোনও রাখঢাকের ব্যাপার নেই। গোষ্ঠীপতি শাসিত এই সমাজে একজন নারী বা পুরুষের বহু সম্পর্ক থাকা স্বাভাবিক ও সমাজস্বীকৃত ঘটনা। বিয়ের আগে ওডাআবে উপজাতির মেয়েরা যার সঙ্গে ইচ্ছা সম্পর্কে জড়াতে পারে। বিয়ের পরেও যতখুশি স্বামী রাখতে পারে।
ওডাআবে উপজাতির কাছে বছরের সবচেয়ে আকর্ষণীয় মাস হল সেপ্টেম্বর। সারাবছর এই উপজাতির মানুষেরা ছোট ছোট পরিবার নিয়ে গড়া দলে বিভক্ত হয়ে ঘুরে বেড়ায় নাইজারের মরুভূমি অঞ্চলে। কয়েক মাস ধরে মরুভূমির মধ্যে দিয়ে হাঁটার পর উপজাতির হাজার হাজার নারীপুরুষ বিভিন্ন জায়গায় একত্রিত হয়ে পালন করে এই উৎসব।
টানা সাতদিন সাতরাত ধরে চলে এই উৎসব। অন্যের বউ চুরির করার চিরাচরিত চেষ্টার সঙ্গে সঙ্গে এই উৎসবে চলে নাচগান, খানাপিনা। মরুভূমির বিভিন্ন মরুদ্যানে প্রতিবছর উৎসবটি হয়। উৎসবের স্থানগুলোর নাম আগে থেকে বলা হয় না। উৎসবের কিছুদিন আগে স্থান ও দিন ঘোষণা করা হয়।
এই প্রতিযোগিতার জন্য পুরুষরা কয়েকমাস আগে থেকে নিজেকে তৈরি করা শুরু করে। ওডাআবে উপজাতির নারী, পুরুষরা তাদের সৌন্দর্য্য নিয়ে ভীষণ গর্বিত। পুরুষরা মনে করে তারাই পৃথিবীর সবচেয়ে সুদর্শন পুরুষ। এমনকি তাদের রুপচর্চায় যাতে ব্যাঘাত না ঘটে তাই তারা সঙ্গে আয়না নিয়ে ঘোরে। সূত্র : দ্য ওয়াল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close