খেলাধুলা

নতুন বছরে হোঁচট খেল বার্সা

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: লা লিগার টেবিলের তলানির দল এসপায়নাল ২-২ গোলে রুখে দিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনাকে। ম্যাচটিতে বার্সার হয়ে গোল করেন লুইস সুয়ারেজ ও আতুরো ভাইদাল। অন্যদিকে এসপায়নলের হয়ে গোল করেন ডেভিড লোপেজ ও উ লি। গত অক্টোবর থেকে লা লিগায় কোনো জয়ের মুখ দেখেনি এসপায়নল। ফলে ২০ দলের মধ্যে ২০তম স্থানে রয়েছে তারা। আর এই এসপায়নলের বিপইে ড্র করতে হলো তারকায় ঠাসা বার্সেলোনাকে। ম্যাচটির প্রথমার্ধের ২৩ মিনিটে গোল হজম করে ১-০ গোলে পিছিয়েছিল কাতালানরা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের ৫০ ও ৫৯ মিনিটে গোল করে লিড তুলে নিয়েছিল মেসিরা। কিন্তু ৮৮ মিনিটে চাইনিজ স্ট্রাইকার উ লির গোলে ঐতিহাসিক ড্র করে এসপায়নল। ম্যাচের ৭৫ মিনিটের সময় লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ফ্রাঙ্ক দি জং। ফলে বার্সা পরিণত হয় ১০ জনের দলে। আর এই সুযোগটিই কাজে লাগায় এসপায়নল।
তবে ম্যাচে বল দখলের লড়াইয়ে আধিপত্য দেখিয়েছে বার্সা। পুরো ম্যাচে তারা ৭১ ভাগ সময় বল নিজেদের দখলে রাখতে সমর্থ হয়। অন্যদিকে এসপায়নল মাত্র ২৯ ভাগ সময় বল নিজেদের দখলে রাখতে সমর্থ হয়। তা ছাড়া প্রতিপরে জাল ল্য করে শট করার দিক দিয়েও অনেক এগিয়েছিল ভালভার্দের শিষ্যরা। পুরো ম্যাচে বার্সা যেখানে ৮ বার এসপায়নলের জাল ল্য করে শট করতে সমর্থ হয় সেখানে এসপায়নল ৩ বার বার্সার জাল ল্য করে শট করতে সমর্থ হয়। তবে ৩ বারের প্রচেষ্টায় ২ বারই গোল করতে সমর্থ হন তারা।
এই ড্রয়ের মাধ্যমে ১৯ ম্যাচ শেষে বার্সার পয়েন্ট ৪০। অপরদিকে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকা রিয়ালের পয়েন্টও ১৯ ম্যাচ থেকে ৪০। তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে শীর্ষস্থানটা ধরে রাখতে সমর্থ হয়েছে মেসি-সুয়ারেজরা। অন্যদিকে ১৯ ম্যাচ খেলে ৩৫ পয়েন্ট সংগ্রহ করে তৃতীয় স্থানে রয়েছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। লা লিগার অপর ম্যাচে গেটাফে সিএফকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ম্যাচটিতে রিয়ালের হয়ে জোড়া গোল করেন রাফায়েল ভারানে ও লুকা মদ্রিচ। এই জয়ের মাধ্যমে টানা ৩ ম্যাচ ড্র করার পর জয়ের স্বাদ পেল জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। ম্যাচটি বড় ব্যবধানে জিতলেও রিয়াল মাদ্রিদকে ঘাম ঝরাতে হয়েছে।
লা লিগায় দিনের অপর ম্যাচে লেভান্তেকে ২-১ গোলে হারিয়েছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। ম্যাচটিতে অ্যাতলেটিকোর হয়ে গোল করেন অ্যাঞ্জেল কোরেরা ও ফিলিপে অগাস্টো। অন্যদিকে লেভান্তের হয়ে গোলটি করেন রোজার মার্টি। পুরো ম্যাচে হওয়া ৩টি গোলের সবগুলোই আসে ম্যাচের ২০ মিনিটের মধ্যে। এরপর আর কোনো দল গোল না করতে পারলে ২-১ গোলের জয় পায় অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। তবে ম্যাচটিতে অ্যাতলেটিকোর চেয়ে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়েছিল লেভান্তে। পুরো ম্যাচে তারা ৬০ ভাগ সময় বল নিজেদের দখলে রাখতে সমর্থ হয়। অপরদিকে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ পুরো ম্যাচে ৪০ ভাগ সময় বল নিজেদের দখলে রাখতে সমর্থ হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close