দেশের খবর

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে নতুন ১৭টি মামলা

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে নতুন করে ১৭টি দেওয়ানি মামলা দায়ের করেছেন গ্রামীণ টেলিকমের সাবেক ও বর্তমান কর্মীরা। গত রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার তৃতীয় শ্রম আদালতে ১৭টি মামলা করেন তার প্রতিষ্ঠানের বর্তমান কর্মীরা। এ নিয়ে গ্রামীণ টেলিকমের কর্মীরা ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে মোট ১০৭টি মামলা দায়ের করলেন। যার মধ্যে সাবেক কর্মীদের ১৪টি ও বর্তমান কর্মীদের ৯৩টি মামলা রয়েছে।
ড. ইউনূসকে এসব মামলায় গ্রামীণ টেলিকমের চেয়ারম্যান হিসেবে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া গ্রামীণ টেলিকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে আশরাফুল হাসানকেও এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে।

বাদীপক্ষের আইনজীবী জাফরুল হাসান শরীফ জানিয়েছেন, রোববার (২ ফেব্রুয়ারি) শ্রম আদালতে যে ১৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে সেগুলোর শুনানির জন্য আদালত ২৩ মার্চ দিন ধার্য করেছেন।
অন্যদিকে ড. মোহাম্মদ ইউনূসের আইনজীবী রাজু আহম্মেদ গণমাধ্যমকে বলেছেন, ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে আরও ১৭টি মামলা হয়েছে আমরা তা শুনেছি। আইনগতভাবে আমরা এসব মামলার মোকাবিলা করব।
মামলার অভিযোগে যা আছে
মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোনে ৩৪.২০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে গ্রামীণ টেলিকমের। প্রতিষ্ঠানটি নিজস্ব পল্লীফোন ছাড়াও নোকিয়া সার্ভিস দিয়ে থাকে। প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা কর্মীদের মাঝে বণ্টন করে দেয়ার আইনি বাধ্যবাধকতা থাকলেও তা দেয়া হয়নি।
২০১৬ সালে সরকারের অংশ চেয়ে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক স্বাক্ষরিত ২টি চিঠি এবং কল কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক থেকে ১টি চিঠি দিয়ে টাকা চাইলেও গ্রামীণ টেলিকম তা কর্ণপাত করেনি।
২০০৬ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত গ্রামীণ টেলিকমের মুনাফা হয়েছে ৪০৭৪ কোটি ৭৭ লাখ ৬৫ হাজার ৪০ টাকা। যার ৫ শতাংশ, অর্থাৎ ২০৪ কোটি টাকা সকল কর্মীদের মধ্যে সমানভাবে বণ্টন করে দেয়ার বিধান থাকলেও সেই টাকা কর্মীদের মাঝে পরিশোধ করা হয়নি।
নতুন ১৭ মামলার বাদী যারা
কাজী ফিরোজা সনি (মামলা নম্বর- ৫৭/২০২০), মনিরুজ্জামান টনি (মামলা নম্বর- ৫৮/২০২০), রবিউল ইসলাম (মামলা নম্বর-৫৯/২০২০), আবু নাঈম বায়েজিদ (মামলা নম্বর- ৬০/২০২০), বিল্লাল হোসেন (মামলা নম্বর- ৬১/২০২০), সাদমান সাকিব (মামলা নম্বর- ৬২/২০২০), জুনায়েদ হোসেন (মামলা নম্বর- ৬৩/২০২০), মোফাসল হক তুহিন (মামলা নম্বর-৬৪/২০২০), মাহামুদুল হাসান সুজন (মামলা নম্বর- ৬৫/২০২০), মোস্তাফিজুর রহমান মিলন (মামলা নম্বর- ৬৬/২০২০), সাদিকুর রহমান (মামলা নম্বর- ৬৭/২০২০), আমিনুল হক চৌধুরী (মামলা নম্বর- ৬৮/২০২০), সাবিনা ইয়াসমিন (মামলা নম্বর- ৬৯/২০২০), বাছির উদ্দিন (মামলা নম্বর-৭০/২০২০), রেজাউল করিম (মামলা নম্বর-৭১/২০২০), হাফিজুর রহমান (মামলা নম্বর- ৭২/২০২০) ও শরীফুল ইসলাম (মামলা নম্বর-৭৩/২০২০)।
বগুড়ায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস উদযাপিত
ষ্টাফ রিপোর্টার:‘পড়ব বই, গড়ব দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ স্লোগানে বগুড়ায় জেলা প্রশাসন এবং উডবার্ণ সরকারী গণগ্রন্থাগারের আয়োজনে বুধবার বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস-২০২০ উদযাপিত হয়েছে।
দিবসটি উপলক্ষে সকালে বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বটতলা থেকে জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদের নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পার্ক রোডে উডবার্ণ সরকারি গণগ্রন্থাগারে এসে শেষ হয়।
র‌্যালী পরবর্তী গণগ্রন্থাগারের মিলনায়তনে দিবসটি উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগার বগুড়ার সহকারী লাইব্রেরিয়ান আমির হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা: মকবুল হোসেন, সরকারি শাহ সুলতান কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো: শহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মাসুম আলী বেগ এবং জেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) হযরত আলী সরকার। মেরাজ মো: নবীউল ইসলাম এবং হাজেরা স্মৃতি পাঠাগারের সভাপতি মিনারা বেগম মিনা’র সঞ্চালনায় সভায় মূখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন সরকারি আজিজুল হক কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. গাজী তৌহিদুল আলম চৌধুরী।
এসময় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক সোহেল মো: শামসুদ্দীন ফিরোজ, সরকারি শাহ সুলতান কলেজের গ্রন্থাগারিক শহীদ উল আজাদ (তুর্য), বগুড়া গ্রন্থ কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক গৌতম কুমার দাস প্রমুখ। সভা পরবর্তী দিবসটি উপলক্ষে আয়োজিত স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে বই পড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
র‌্যালী ও আলোচনা সভায় ব্রাক, ঠেঙ্গামারা গণপাঠাগার, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাসেন আলী স্মৃতি পাঠাগার, হাজেরা স্মৃতি পাঠাগার সহ জেলার বিভিন্ন বেসরকারী পাঠাগার এবং জেলার বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীসহ প্রায় ৫ শতাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close