বিনোদন

স্বপ্নের সিঁড়ি বেয়ে সিঁথি

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: মানুষের জীবনে কিছু অতীত থাকে, যার রেশ বয়ে চলে অনেক দূর পর্যন্ত। কিছু ঘটনা হয়তো মুহূর্তের মধ্যে মিলিয়ে যায়, কিন্তু তার অনুভুতি মনের মধ্যে অনুরণন তোলে দীর্ঘ সময়জুড়ে। সংগীতশিল্পী সিঁথি সাহার বেলায় ঘটেছে তেমনই একটি ঘটনা।
একটু পেছন ফিরে তাকানো যাক, বছর দুয়েক আগে ঢাকা আন্তর্জাতিক ফোক ফেস্টে গিয়েছিলেন তিনি। লোকজ সুরের অতলে ডুব দিতেই সেখানে যাওয়া। মঞ্চে গান গাইছিলেন পাকিস্তানের বিখ্যাত গায়ক শাফকাত আমানত আলী। দর্শকরা ততক্ষণে গানের লয়ে দুলছিলেন। তবে সিঁথি হয়ে ছিলেন মন্ত্রমুগ্ধ। নড়চড় নেই, এক ধ্যানে শুনে যাচ্ছেন গান। এরই মধ্যে আবিস্কার করলেন মঞ্চ থেকে নেমে শাফকাত একেবারেই তার সামনে এসে মাইক্রোফোন ধরলেন। সিঁথিও তার সঙ্গে গলা মেলালেন ‘আজ জানে কি জিদ না করো…’। উপস্থিত অনেক দর্শকের মুখেই তখন একটি কথাই ছিল ‘হোয়াট অ্যা কম্বিনেশন’!
সেখানেই কয়েকজন বলাবলি করেন শাফকাতের সঙ্গে সিঁথির দ্বৈত গান হলে দারুণ জমবে। আর এই কথার রেশ যেন সিঁথি বয়ে চললেন গত দুটি বছর। অবশেষে কিছুদিন আগে শাফকাতের সঙ্গে দুটি মৌলিক গানে কণ্ঠ দিলেন তিনি। একটি লুতফর হাসানের লেখা ও অদিতের সুর-সংগীতে ‘কাজল রাতে’, আরেকটি কলকাতার ইন্দ্রদীপ দাসগুপ্তের লেখা ও সুরে ‘রাত জাগা পাখি’।
এর মধ্যে ‘কাজল রাতে’ গানটি হিন্দি ও বাংলা ভার্সনে গেয়েছেন তারা। শাফকাতের সঙ্গে গান গাইতে পেরে রোমাঞ্চিত সিঁথি সাহা। তিনি বলেন, ‘বছর দুয়েক আগে লোকসংগীত উৎসবে শাফকাতের সঙ্গে প্রথম দেখা হলেও দুজনের পরিচয় হয়েছে আরও আগে। ২০১৫ সালে তার ‘খামাজ’ গানটি কভার করে আমার ইউটিউবে ছেড়েছিলাম। হঠাৎ একদিন দেখি গানটি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে শেয়ার দিয়েছেন। অবাক হয়েছিলাম।’
তিনি আরও বলেন, ‘স্টুডিওতে তার সামনে গান গাইতে রীতিমতো কাঁপছিলাম। ‘কাজল রাতে’ গানটির হিন্দি ভার্সন স্টুডিওতে বসেই লিখে ফেললেন শাফকাত। তারপর গানটি তুলতে সহযোগিতা করলেন তিনি। এই মাসে শাফকাতের ঢাকায় আসার কথা আছে। যদিও ভিসা জটিলতাজনিত কিছু সমস্যা আছে। তবে তিনি এলেই গানগুলোর ভিডিও ধারণ হবে।
এরপর ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করব।’ চলতি বছর সিঁথির জন্য যেন দু’হাত ভরে দিয়েছে। ব্যক্তিজীবনে ধীরে চলার নীতিতে বিশ্বাসী মেয়েটি এখন ধীরে চলার কোনো ফুরসতই পাচ্ছেন না। এরই মধ্যে ইমরানের সঙ্গে একটি দ্বৈত গানে কণ্ঠ দিয়েছেন।
পাশাপাশি প্লে­ব্যাক করেছেন স্বপ্নবাজি, পরাণ, মেক-আপসহ আরও বেশ কিছু সিনেমায়। এ ছাড়া কলকাতার এসবিএফের ব্যানারে সিঁথির ছয়টি ডিভোশনাল গান প্রকাশ পাবে। এর প্রথমটি প্রকাশ পাবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি। অনুুপম মিউজিকের ব্যানারেও একটি গান বেরোচ্ছে। সব মিলিয়ে সিঁথি যেন তার স্বপ্নের সিঁড়ি বেয়ে ছুটছেন আগামীর পথে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close