দেশের খবর

রাবি শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে হল প্রাধ্যরে ভাই গ্রেফতার

Spread the love

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে শ্যামল বণিক (৪০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শ্যামল বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা হলের প্রাধ্য ও সংস্কৃত বিভাগের অধ্যাপক বীথিকা বণিকের ভাই। বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। বর্তমানে ভুক্তভোগী ছাত্রী ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন তার বিভাগের সভাপতি। বুধবার সকালে শ্যামল বণিককে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মতিহার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী অধ্যাপক বীথিকা বণিকের মেয়েকে প্রাইভেট পড়াতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ধরমপুর এলাকার যোজক টাওয়ারে যান। পড়ানো শেষ হয় রাত সাড়ে ১০টার দিকে। আবহাওয়া ভালো না থাকায় এবং গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির কারণে বীথিকা তাকে ক্যাম্পাসে না গিয়ে তার বাসায় থেকে যেতে বললে ওই ছাত্রী রাজি হন। রাত দেড়টার দিকে বীথিকা হলে চলে যান। তখন ওই বাসায় বীথিকার দুই মেয়ে, ছোট ভাই শ্যামল বণিক ও ভুক্তভোগী ছাত্রী ছিলেন। আনুমানিক রাত ২টার দিকে শ্যামল ওই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন করে। এ সময় ওই ছাত্রী চিৎকার করলে শ্যামল রুম থেকে চলে যায়। পরে ছাত্রীটি জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন করলে মতিহার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার এবং শ্যামল বণিককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে অধ্যাপক বীথিকা বণিক বলেন, ‘মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে হলে একটা সমস্যা হওয়ায় তৎণাৎ আমি বাসা থেকে হলে আসি। রাতে আমি হলেই ছিলাম। সকালে বিষয়টি জানতে পারি। ঘটনাটির সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া জরুরি। যদি আমার ভাইয়ের দোষ থাকে তাহলে অবশ্যই তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হোক এটাই আমার দাবি।’ মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, ‘শ্যামল বণিককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। উপ-পরিদর্শক (এসআই) রেজাউল করিমকে মামলার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।’

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close