স্থানীয় খবর

বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্ববাসীর জন্য প্রেরণার চিরন্তন উৎস – রাগেবুল আহসান রিপু

Spread the love

ষ্টাফ রিপোর্টার ঃ বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু বলেছেন, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ মুক্তিকামী বাঙালি জাতিকে মুক্তির বাণী শুনিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান৷ ৭ই মার্চের সেই ভাষণেরই সফল পরিণতি স্বাধীন বাংলাদেশ৷ বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ভাষণ কেবল আমাদের নয়, বিশ্ববাসীর জন্যই প্রেরণার চিরন্তন উৎস। সাধারণ নাগরিক থেকে শুরু করে রাজনৈতিক নেতা, রাষ্ট্রনায়ক, সমরকুশলী- সবার জন্যই এ ভাষণে অনেক কিছু শিক্ষণীয় রয়েছে। মাত্র ১৮ মিনিটের এক অভূতপূর্ব ভাষণ, কোনো কাগজ বা নোটের সাহায্য ছাড়া স্বতঃস্ফূর্তভাবে উচ্চারণ করেন জাতির পিতা। শব্দের বুনন, প্রাণের আবেগ আর দরাজ গলায় বর্ষিত এ ভাষণ যেন বুলেটের মতো বুকে প্রবেশ করে উজ্জীবিত করে সমগ্র বাঙালি জাতিকে। আর রকেট শেলের মতো বিদীর্ণ করে স্বৈরাচারী পাকিস্তানি শাসকদের হৃৎপিন্ড। একটি ভাষণ কীভাবে গোটা জাতিকে জাগিয়ে তোলে, স্বাধীনতার জন্য মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে উৎসাহিত করে, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ তার অনন্য উদাহরণ৷ বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ একটি জাতি-জনগোষ্ঠীর মুক্তির কালজয়ী সৃষ্টি, এক মহাকাব্য। শুধু বাঙালির জন্যই নয়, বিশ্বমানবতার জন্যও অবিস্মরণীয়, অনুকরণীয় এক মহামূল্যবান সম্পদ। গণতন্ত্র, উচ্চ মানবিকতা, ত্যাগ ও দেশপ্রেমের উজ্জ্বল আদর্শ, অন্যায়ের বিরুদ্ধে ন্যায়ের সংগ্রাম, জাতিভেদ-বৈষম্য ও জাতি-নিপীড়নের বিরুদ্ধে বিশ্বমানবতার মুক্তির সংগ্রামে যুগে যুগে এ ভাষণ অনুপ্রেরণা জোগাবে। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দীর্ঘ নয় মাস সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা অর্জন করি স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ৷ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছি আমরা। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে তিনি যুবসমাজকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানান। তিনি শনিবার বিকেলে বগুড়ার মম ইন বিনোদন পার্কে বগুড়া জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ডাবলুর আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কথাগুলো বলেন। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষন: কালের যাত্রার ধ্বনি, ‘যার ডাকে স্বাধীনতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা: মকবুল হোসেন। এতে বক্তব্য রাখেন জেলা আ’লীগের যুগ্ম সম্পাদক সাগর কুমার রায়, আসাদুর রহমান দুলু, পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ শাহাদত আলম ঝুনু, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবি পরিষদের সা: সম্পাদক এড. নরেশ মুখার্জি, স্বাধীনতা বিসিএস সা: শিক্ষা পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম জোয়ার্দার, জেলা পরিষদ সদস্য রুহুল মোমিন তারিক, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাশরাফি হিরো। জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ডাবলুর সভাপতিত্বে ও বগুড়া প্রেসক্লাবের সহসভাপতি আব্দুস সালাম বাবু’র সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এম এ বাসেদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি তৌফিক হাসান ময়না, সদর উপজেলা আ’লীগের সা: সম্পাদক মাফুজুল ইসলাম রাজ, নন্দীগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্না, শিবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ রিজু, পৌর মেয়র তৌহিদুর রহমান মানিক, জেলা মোটর মালিক গ্রপি সভাপতি শাহ আখতারুজ্জামান ডিউক, সা: সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান আকন্দ, সা: সম্পাদক আব্দুল মতিন সরকার প্রমুখ। অনুষ্ঠানে জেলা, শহর, সদর উপজেলাসহ বিভিন্ন ইউনিটের ৬ শতাধিক নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করেন। কবি ও সাংবাদিক এইচ আলিমের সঞ্চালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন সুকুমার বাউলসহ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের শিল্পিরা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close