দেশের খবর

বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীতে যতো কর্মসূচি

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: বিশ্ব নেতাদের উপস্থিতিতে জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী জাঁকজমকভাবে উদযাপনের প্রস্তুতি ছিলো গত ৬মাস ধরে। কিন্তু হঠাৎ করেই বিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশেও করোভাইরাসের প্রকোপ থাকায় শেষ পর্যন্ত সেসব কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয় দলটির পক্ষে। তবে পূর্বপরিকল্পিত সকল কর্মসূচিকেই নতুন আঙ্গিকে ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইলেকট্রনিক ও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মুজিববর্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। এতে মানুষের স্বাস্থ ঝুকি কমবে। এর মাধ্যমে বিশ্ববাসীর কাছে পৌছে যাবে অনুষ্ঠানটি। এজন্য রাজনৈতিক দলগুলো সে আনুযায়ী তাদের কর্মসূচি সাজিয়েছে।
মুজিববর্ষেকে সামনে রেখে বিভিন্ন দলের ঘোষিত কর্মসূচিগুলো পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো—
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ : আগামী ১৭ মার্চ ৬: ৩০ মিনিটে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও সারাদেশের সব দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উদযাপনের কার্যক্রম শুরু হবে ।
সকাল ৭টায় বঙ্গবন্ধু ভবনে তার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। এছাড়া জেলা ও উপজেলায় আওয়ামী লীগের শাখাগুলোতে বিভিন্ন কর্মসূচি থাকবে।
১৭ মার্চ সন্ধা ৬ টার পর বঙ্গবন্ধু জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির বিভিন্ন কর্মসূচি রয়েছে যেগুলো বিভিন্ন গণম্যাধ্যমে একযোগে প্রচার হবে। জাতির পিতার জন্মলগ্ন রাত ৮ টায় সারাদেশে একযোগে আতশবাজি কর্মসূচি চলবে।
এসময় মুজিবর্ষের অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে। এছাড়াও ১৭ মার্চ দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি থাকবে। এদিন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভূমিহীন ও গৃহহীনদের তালিকা অনুযায়ী গৃহনির্মান কর্মসূচি উদ্বোধন করবেন।’
করোনাভাইরাসের কারণে মুজিববর্ষ উদযাপনে গণজমায়েতের অনুষ্ঠান বাতিলের পাশাপাশি আগামী ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস ও ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগের কোনো আলোচনা সভা না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। শুধুমাত্র শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলীর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে দলীয় কর্মসূচি।
১৪ দলের কর্মসূচি: আগামী ১৭ মার্চ ১৪ দলের ধানমন্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্য দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হবে। এদিন রাত ৮ টায় জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে। এসময় সেখানে শুধু ১৪ দলের নেতাকর্মীরা থাকবেন। এছাড়াও রাতে বঙ্গবন্ধুর স্মরনে সংক্ষিপ্ত আকারে মোমবাতি প্রজ্জলন করা হবে। ২০ মার্চ টুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধীস্থলে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে।
জাতীয় পার্টি (জেপি) : এদিকে ১৭ মার্চ বিকেল ৩ টায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে জাতীয়পার্টির (জেপি) নেতারা। এদিন রাত ৮ টায় বঙ্গবন্ধুর জন্মলগ্নে রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ ৩২ নম্বরে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা করবেন তারা। এছাড়াও ২০ মার্চ টুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধীস্থলে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে বলে জানান দলটির সাধারন সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম।
জাতীয় পার্টি (জাপা) : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান করবে সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি। তবে করোনাভাইরাসের কারণে ঠিক কবে নাগাদ এ করা আয়োজন হবে, তা জানাতে পারেনি দলটি।
কৃষক শ্রমিক জনতালীগ: ৩২ নম্বরে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন দলের নেতাবৃন্দরা। দলটির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তালুকদার জানান, করোনাভাইরাসের ঝুকি থাকায় এসব কর্মসূচীতে কেবল দলীয় কর্মীরাই থাকবেন।

বাংলাদেশ সাম্যবাদী দল (এম,এল) দল : দলটির সাধারন সম্পাদক দিলিপ বড়ুয়া জানান, মুজিবশতবর্ষ উপলক্ষে বছর ব্যাপি বিভিন্ন সভাসমাবেশের আয়োজন করেবে সাম্যবাদী দল।
বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট : মুজিববর্ষকে সামনে রেখে বছর ব্যাপি নান কর্মসূচি ঘোষনা করেছে বঙ্গবন্ধুর সাংস্কৃতিক জোট। তাদের কার্যসূচিতে থাকছে, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, জাতির সংগ্রামী জীবনী নিয়ে রচনা প্রতিযোগিতা, শিশুদের স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি প্রভৃতি। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা জানাচ্ছেন, “শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আমরা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটে বছরব্যাপী কর্মসূচি পালন করবো। তবে করোনাভাইরাসের কারণে জনসমাগম কমিয়ে এখন সীমিত আকারে কাজ শুরু করেছি। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বড় পরিসরে কর্মসূচি গ্রহণ করবো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close