দেশের খবর

খুনি মাজেদের ফাঁসি কার্যকর করতে প্রস্তুত ১০ জল্লাদ

Spread the love

আজকের শেরপুর ডেস্ক : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদের ফাঁসি কার্যকরের প্রস্তুতি নিয়েছে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার। এ জন্য ১০ জল্লাদের একটি দল প্রস্তুত করেছে তারা। শুক্রবার ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

সূত্রটি জানায়, বঙ্গবন্ধুর খুনি আবদুল মাজেদের ফাঁসি কার্যকর করতে জল্লাদ শাহজাহানের নেতৃত্বে মো. আবুল, তরিকুল ও সোহেল সহ ১০ জন জল্লাদের একটি দলকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জল্লাদের দল ইতিমধ্যে কারাগারে ফাঁসির ট্রায়াল সম্পন্ন করেছে। যেকোনো সময় মাজেদের ফাঁসির রায় কার্যকর হতে পারে। শনিবার অথবা রোববার ফাঁসি কার্যকরের সম্ভাবনা বেশি বলেও সূত্রটি জানিয়েছে।
এদিকে, শুক্রবার সন্ধ্যায় কারা কর্তৃপক্ষের ডাকে কেরানীগঞ্জে অবস্থিত ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রবেশ করেন আবদুল মাজেদের স্বজনরা। মাজেদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার আনুষ্ঠানিকতার মধ্যে তার স্বজনদের সাক্ষাৎ করতে ডেকে নিল কারা কর্তৃপক্ষ।
বঙ্গবন্ধুকে হত্যায় জড়িত থাকা আবদুল মাজেদ ২৩ বছর ধরে পলাতক ছিলেন। তিনি ২২ বছর কলকাতায় ছিলেন বলে জানিয়েছেন। গত ৬ এপ্রিল মধ্যরাতে রিকশায় ঘোরাঘুরির সময় তাকে গাবতলী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট। পরে তাকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে হাজির করে সিটিটিসি। এরপর মাজেদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।
গত ৮ এপ্রিল মৃত্যুর পরোয়ানা পড়ে শোনানোর পর সব দোষ স্বীকার করে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চান আবদুল মাজেদ। প্রাণভিক্ষার আবেদনটি নাকচ করে দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।
কারা সূত্র জানায়, রাষ্ট্রপতি আবদুল মাজেদের প্রাণভিক্ষার আবেদন বাতিল করে দেওয়ার পর সেই চিঠিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছায়। কারাবিধি অনুযায়ী পরবর্তী কার্যক্রম চলবে। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছিলেন, ‘আবদুল মাজেদের প্রাণভিক্ষার আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। প্রাণভিক্ষার আবেদন বাতিল হয়ে যাওয়ায় ফাঁসির আদেশ কার্যকরে আর কোনো বাধা থাকলো না। এখন পরবর্তী প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তার ফাঁসির দণ্ড কার্যকর করা হবে।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close