স্বাস্থ্য কথা

কালো জিরার কিছু জাদুকরী গুণ

Spread the love

শেরপুর ডেস্ক: রান্নায় স্বাদ বাড়াাতে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি উপাদান হলো কালো জিরা। তবে শুধু স্বাদ বাড়াতেই নয়, শরীরকে রোগমুক্ত রাখতেও সাহায্য করে এটি। প্রাচীনকাল থেকেই এই মশলার ব্যবহার হয়ে আসছে। কালো জিরাতে রয়েছে ফসফেট, ফসফরাস আর আয়রন, যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী।এ ছাড়াও কালো জিরার একাধিক আশ্চর্য স্বাস্থ্যগুণ রয়েছে। এবার সেগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-
১) পেটের সমস্যার সমাধান করতে কালো জিরা খেতে পারেন। এটি ভেজে গুঁড়ো করে আধা কাপ দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খেতে পারলে তা পেটের অনেক সমস্যা দূরে করতে সাহায্য করবে।

২) কালো জিরাতে ফসফরাস নামক এমন এক উপাদান রয়েছে, যা শরীরের রোগ প্রতিরোধে মতা বাড়িয়ে তোলে। এ ছাড়া শরীরের যেকোনো জীবাণুর সংক্রমণ ঠেকাতেও এটি অত্যন্ত কার্যকরী।
৩) বর্ষাকালে অনেকের মাথা যন্ত্রণা বা মাথা ঝিমঝিম করতে থাকে। এ েেত্র একটা কাপড়ের পুঁটুলিতে কালো জিরা বেঁধে তা রোদে শুকাতে দিন। এর পর তা নাকের কাছে ধরলে মাথা ও বুকে জমে থাকা শ্লেষ্মা সহজেই বেরিয়ে যায়। আবার মাথা যন্ত্রণার অস্বস্তি কমাতেও সাহায্য করে কালো জিরা।
৪) বিভিন্ন উপাদানের পাশাপাশি কালো জিরাতে রয়েছে আয়রন আর ফসফেট। যা শরীরে অক্সিজেনের ভারসাম্য রা করে। তাই শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা থেকে রেহাই পেতে এটি খুবই কার্যকরী!
৫) কালো জিরা দুর্দান্ত অ্যান্টি টক্সিনের কাজ করে। তাই নিয়মিত ও পরিষ্কার প্রস্রাবের জন্যও কালো জিরা খেতে পারেন। আবার মূত্রথলির সংক্রমণ ঠেকাতেও এটি উপকারী।
৬) কালো জিরা নারী ও পুরুষে উভয়ের যৌন মতা বাড়াতে সাহায্য করে । বিশেষ করে পুরুষদের জন্য খুব উপকারী । নিয়মিত কালো জিরা সেবনে পুরুষত্ব হীনতা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।
৭) চা বা গরম পানির সঙ্গে কালো জিরার তেল মিশিয়ে পান করলে হৃদরোগে যেমন উপকার পাওয়া যায়, তেমনি শরীরের বাড়তি মেদ কমাতেও সাহায্য করে।
৮) চুল পড়া রোধেও কালো জিরা খুব উপকারী। চুল শ্যাম্পু করার পর শুকিয়ে নিন। এবার পুরো মাথায় কালো জিরার তেল ভালো মতো লাগান । এক সপ্তাহ নিয়মিত করলে চুল পড়া অনেক কমে যাবে।
৯) এক কাপ দুধ ও এক চা চামচ কালো জিরার তেল একসঙ্গে মিশিয়ে দৈনিক পান করুন। পেটে গ্যাসের সমস্যা থাকলে তা কমে যাবে ।
১০) যাদের উচ্চ রক্তচাপ আছে, তারা দৈনিক কোনো না কোনোভাবে কালো জিরা সেবনের চেষ্টা করুন। কারণ, কালো জিরা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। গরম ভাতের সঙ্গেও কালো জিরার ভর্তা খেতে পারেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close