বিদেশের খবর

পুলিৎজার জিতলেন ৩ কাশ্মিরি সাংবাদিক

Spread the love

আজকের শেরপুর ডেস্ক: তিন কাশ্মিরি সাংবাদিক সম্মানসূচক পুলিৎজার পুরস্কার পেয়েছেন। তারা হলেন ফটোসাংবাদিক দার ইয়াসিন, মুখতার খান এবং চেন্নাই আনন্দ। তিনজনই মার্কিন বার্তা সংস্থা এপিতে (অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস) কাজ করেন। গত সোমবার ইউটিউবে সরাসরি সম্প্রচারে এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।
ফিচার ফটোগ্রাফি শাখায় তাদের পুরস্কৃত করা হয়। গত বছরের আগস্টে ভারত অধিকৃত কাশ্মিরে অভূতপূর্ব লকডাউনের সাহসী সম্প্রচার করায় তাদের সম্মানজনক পুলিৎজার দেয়া হয়। প্রতি বছর নিউ ইয়র্কের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পুলিৎজার ঘোষণা করা হয়। তবে এবার করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ওই আয়োজন বাতিল করে পুলিৎজার বোর্ড প্রশাসক ডানা কেনেডির লিভিংরুম থেকে ঘোষণা করা হয় এ পুরস্কার।
পরে ওয়েবসাইটে দেয়া এক বিবৃতিতে পুলিৎজার কর্তৃপক্ষ জানায়, অস্থির কাশ্মিরি জীবনের আকর্ষণীয় ছবি তোলার কারণে এপির তিন সাংবাদিক পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। কখনো পথচারীদের আড়ালে লুকিয়ে, কখনো রোডব্লক এড়িয়ে; আবার কখনো সবজির ব্যাগে ক্যামেরা নিয়ে এই তিন সাংবাদিক বিক্ষোভ, পুলিশ আর আধাসামরিক বাহিনীর অভিযান আর প্রাত্যহিক জীবনের ছবি তুলেছেন। ছবি তোলা শেষে তারা স্থানীয় বিমানবন্দরে গিয়ে যাত্রীদের হাতে ফাইল দিয়ে দিল্লিতে এপির কার্যালয়ে ছবি পৌঁছে দেন।
দ্বিতীয়বারের মতো ফিকশনে পুলিৎজার পুরস্কার পেয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের লেখক কলসন হোয়াইটহেড।
পুলিৎজারের ইতিহাসে হোয়াইটহেড হলেন চতুর্থ লেখক, যিনি ফিকশনে দুইবার এ পুরস্কার পেলেন। আফ্রিকান বংশোদ্ভূত এই আমেরিকান লেখক এবার পুলিৎজার পেয়েছেন ‘দ্য নিকেল বয়েজ’ উপন্যাসের জন্য, যেখানে তিনি ফ্লোরিডার এক সংশোধনাগারে কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরদের নিগ্রহের কথা বর্ণনা করেছেন। ৫০ বছর বয়সী হোয়াইটহেড এর আগে ২০১৭ সালে ‘আন্ডারগ্রাউন্ড রেলরোড’ উপন্যাসের জন্য একই বিভাগে পুলিৎজার পান।
তার আগে বুথ টারকিংটন, উইলিয়াম ফকনার ও জন আপডাইকও দুইবার করে ফিকশনে পুলিৎজার জিতেছেন। করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে এবারের পুলিৎজার পুরস্কারের ঘোষণা পিছিয়ে দেয়া হয়েছিল কয়েক সপ্তাহ। শেষ পর্যন্ত এ পুরস্কারের অ্যাডমিনিস্ট্রেটর সাংবাদিক ডানা ক্যানেডি সোমবার তার বাড়িতে বসে ২০২০ সালের পুরস্কারজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। এ বছর সাংবাদিকতার ক্যাটাগরিগুলোতে সর্বোচ্চ তিনটি পুরস্কার জিতে নিয়েছেন নিউ ইয়র্ক টাইমসের সাংবাদিকরা। এর মধ্যে ব্রায়ান রোজেনথাল নিউ ইয়র্কে সুদের কারবারির ঋণের ফাঁদে ট্যাক্সি চালকদের দুর্দশার চিত্র তুলে এনে অনুসন্ধানী রিপোর্ট ক্যাটাগরির সম্মানজনক পুরস্কারটি পেয়েছেন।
জনস্বার্থে সাংবাদিকতা ক্যাটাগরিতে এবার যৌথভাবে পুলিৎজার পেয়েছে প্রোপাবলিকা ও অ্যাংকরেজ ডেইলি। হংকং বিক্ষোভের ছবির জন্য ‘ব্রেকিং নিউজ ফটোগ্রাফি’ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন রয়টার্সের একজন আলোকচিত্রী। এবারই প্রথম অডিও রিপোর্টিং ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়া হয়েছে পুলিৎজারে। সেই পুরস্কার পেয়েছে ‘দিস আমেরিকান লাইফ’ নামে একটি রেডিও অনুষ্ঠান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
Close